Wednesday, August 22, 2012

বাংলা ২য় পত্র for JSC Exam

১. ভাষার উৎপত্তি হয়েছে কোন শতাব্দীতে?
ক) পঞ্চম শতাব্দীতে
খ) সপ্তম শতাব্দীতে
গ) অষ্টম শতাব্দীতে
ঘ) নবম শতাব্দীতে
২. ভাষা কিসের বাহন?
ক) ধ্বনির খ) শব্দের
গ) ভাবের ঘ) বর্ণের
৩. পৃথিবীর কত কোটি লোক বাংলা ভাষায় কথা বলে?
ক) পনের কোটি খ) বিশ কোটি গ) চবি্বশ কোটি ঘ) পঁচিশ কোটি
৪. বাংলা ভাষার কয়টি রূপ?
ক) ২টি খ) ৩টি গ) ৪টি ঘ) ৬টি
৫. বাংলা লেখ্য ভাষারীতি কয় প্রকার?
ক) দুই প্রকার খ) তিন প্রকার
গ) চার প্রকার ঘ) পাঁচ প্রকার
৬. বাংলা সাহিত্যে চলিত রীতির প্রবর্তক কে?
ক) প্রমথ চৌধুরী
খ) প্যারীচাঁদ মিত্র
গ) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
ঘ) ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর
৭. সাধুভাষা রীতিকে কোন কোন পদ পূর্ণরূপ ব্যবহৃত হয়?
ক) বিশেষ্য ও সর্বনাম
খ) ক্রিয়াপদ
গ) বিশেষ্য ও ক্রিয়াপদ
ঘ) সর্বনাম ও ক্রিয়াপদ
৮. কোন ভাষারীতি তদ্ভব শব্দবহুল?
ক) সাধু ভাষারীতি
খ) চলিত রীতি
গ) আঞ্চলিক রীতি
ঘ) বাংলাভাষা রীতি
৯. কোন ভাষা রীতি জীবন্ত ও আধুনিক?
ক) সাধু রীতি খ) চলিত রীতি
গ) আঞ্চলিক রীতি ঘ) কোনোটিই নয়
১০. ভাষা বলতে কোনটিকে বোঝায়?
ক) অর্থবোধক ধ্বনি খ) অর্থহীন ধ্বনি
গ) ছবি ঘ) ইশারা ইঙ্গিত
১১. সাধুরীতিতে 'যদ্যপি' চলিত রীতিতে কোনটি?
ক) যদপ খ) যদপি
গ) যদ্যহি ঘ) যদি
১২. সাধু ও চলিত ভাষার পার্থক্য কোথায়?
ক) শুধু ক্রিয়াপদে খ) শুধু সর্বনামে
গ) শুধু অব্যয়ে ঘ) সবগুলোতেই
১৩. কোনটিকে ব্যাকরণে পদপ্রকরণ বলা হয়?
ক) ধ্বনিতত্ত্ব খ) বাক্যতত্ত্ব
গ) রূপতত্ত্ব ঘ) শব্দতত্ত্ব
১৪. ধ্বনির মূল উৎস কী?
ক) জিহ্বা খ) ফুসফুস
গ) ওষ্ঠ ঘ) কণ্ঠ
১৫. জিভকে কয়ভাবে ভাগ করা যায়?
ক. দুই ভাগে খ) তিন ভাগে
গ) চার ভাগে ঘ) পাঁচ ভাগে
১৬. শক্ত তালুর সামনের অংশকে কী বলে?
ক) দন্ত খ) মাড়ি
গ) মূর্ধা ঘ) জিহ্বামূল
১৭. শব্দের ক্ষুদ্রতম একক কী?
ক) বর্ণ খ) স্বরবর্ণ
গ) ধ্বনি ঘ) ব্যঞ্জনবর্ণ
১৮. 'ব' এর উচ্চারণ স্থান_
ক) কণ্ঠধ্বনি খ) তালব্যধ্বনি গ) ওষ্ঠ্যধ্বনি ঘ) মূর্ধন্য ধ্বনি
১৯. ঞ্জ_ এটি কোন কোন ধ্বনির সমন্বয়ে গঠিত?
ক) ন+জ খ) ণ+জ
গ) ঞ+জ ঘ) জ+ঞ
২০. বাংলা ভাষায় কোন ধ্বনিটি আছে; কিন্তু তার জন্য কোন বর্ণ নেই?
ক) ও খ) এ
গ) এ্যা ঘ) ঋ
২১. অপেক্ষা এর সন্ধিবিচ্ছেদ কোনটি।
ক) অপ+ঈক্ষা খ) অপ+ইক্ষা গ) অপে+ক্ষা ঘ) অপে+ঈক্ষা
২২. 'পদ্ধতি' এর সন্ধিবিচ্ছেদ কোনটি?
ক) পদ+দতি খ) পদ+ধতি গ) পদ+হতি ঘ) পদ+তি 

২৩. 'ঋ'-এর উচ্চারণ স্থান অনুযায়ী নাম কোনটি?
ক) তালব্য ধ্বনি খ) ওষ্ঠ্যধ্বনি
গ) কণ্ঠধ্বনি ঘ) কণ্ঠোষ্ঠ্য ধ্বনি
২৪. অন্তস্থ-ব সহ ব্যঞ্জনবর্ণের সংখ্যা কয়টি?
ক) ২৯টি খ) ২০টি গ) ৩৯টি ঘ) ৪০টি
২৫. মৌলিক স্বরধ্বনি কোনগুলো?
ক) আ, ই, ঈ, উ, এ, ঐ, ও
খ) অ, আ, ই, উ, এ, এ্যা, ও
গ) অ, আ, ই, ঈ, উ, ঊ, এ
ঘ) আ, ই, ঈ, এ, ঐ, এ্যা, ও
২৬. যদ্যপি-এর সন্ধিবিচ্ছেদ কোনটি?
ক) যদ্য+পি খ) যদ+অপি গ) যদি+অপ ঘ) যদি+অপি
২৭. মন্বন্তর এর সন্ধিবিচ্ছেদ কী?
ক) অন্ব+অন্তর খ) মন্ব+অন্তর গ) মনু+অন্তর ঘ) মন+অন্তর
২৮. নিপাতনে সিদ্ধ সন্ধি কোনটি?
ক) বহিষ্কার খ) নমস্কার
গ) বৃহস্পতি ঘ) বাচস্পতি
২৯. অতএব-এর সন্ধিবিচ্ছেদ কোনটি?
ক) অত্র+এব খ) অতি+এব গ) অত+এব ঘ) অতঃ+এব
৩০. ত কিংবা দ-এর পর চ কিংবা ছ থাকলে ত ও দ এর স্থলে বসে_
ক) থ খ) ধ গ) ছ ঘ) চ
৩১. অর্থবোধক ধ্বনি সমষ্টিকে কী বলা হয়?
ক) বর্ণ খ) ধ্বনিমূল
গ) শব্দ ঘ) বাক্য
৩২. শব্দ গঠনের প্রথম উপায় কী?
ক) শব্দের সঙ্গে বর্ণের যোগ
খ) বর্ণের সঙ্গে ধ্বনির যোগ
গ) বর্ণের সঙ্গে বর্ণযোগ
ঘ) ধ্বনির সঙ্গে ধ্বনির যোগ
৩৩. 'য'-এর সংক্ষিপ্ত রূপ_
ক) ফলা খ) ব ফলা
গ) ক ফলা ঘ) য ফলা
৩৪. উপসর্গ যুক্ত হয় শব্দের_
ক) শুরুতে খ) শেষে
গ) মাঝে ঘ) যুক্ত হয় না
৩৫. যে গোষ্ঠীটি বাঙালি জাতির গোড়াপত্তন করেছে, তাদের বলা হতো_
ক) বঙ্গ খ) বঙ্গাল
গ) বং ঘ) বাংলা
৩৬. আর্যরা আসার আগে এ দেশে যারা ছিল, তাদের বলা হয়_
ক) দ্রাবিড় খ) অস্ট্রিক
গ) অনার্য ঘ) পর্তুগিজ
৩৭. কোনটি তদ্ভব শব্দ?
ক) কার্য খ) হত্থ
গ) চাঁদ ঘ) দই
৩৮. 'আলমারি' কোন শব্দ?
ক) গুজরাটি খ) ফরাসি
গ) পর্তুগিজ ঘ) গ্রিক
৩৯. গঠন অনুসারে শব্দ কত প্রকার?
ক) ২ প্রকার খ) ৩ প্রকার
গ) ৪ প্রকার ঘ) ৫ প্রকার
৪০. কোনটি পারিভাষিক শব্দ?
ক) চাঁদ খ) সচিব
গ) হাত ঘ) পাউরুটি
৪১. কোনটি যৌগিক শব্দ?
ক) পঙ্কজ খ) প্রকৃতি
গ) লাজুক ঘ) মধুর
৪২. 'জলধি'-এর অর্থ হলো_
ক) জল দ্বারা পূর্ণ
খ) জল ধারণ করে যে
গ) জল ধারণ করে এমন
ঘ) জলে চরে যে
৪৩. ব্যাঙের আধুলির বাগধারা কোনটি?
ক) অসম্ভব ঘটনা খ) সামান্য সম্পদ
গ) দুঃসাধ্য বস্তু ঘ) অস্থায়ী বস্তু
৪৪. দীর্ঘজীবী ব্যক্তি অর্থে কোনটিকে বোঝায়?
ক) খয়ের খাঁ খ) কেউকেটা
গ) কাকভূষণ্ডী ঘ) কুঁড়ের বাদশা
৪৫. তপন শব্দের সমার্থক শব্দ কোনটি?
ক) কনক খ) সূর্য
গ) মেদিনী ঘ) শশধর
৪৬. কোন বাগধারাটির অর্থ অপূর্ব মিলন?
ক) মনিকাঞ্চন যোগ
খ) আম দুধে মেশা
গ) শিরে সংক্রান্তি
ঘ) আদায় কাঁচকলায় 


২৪। লেখার ক্রমানুসারে সাধারণত পত্রের কয়টি অংশ থাকে?
ক. তিনটি খ. চারটি
গ. পাঁচটি ঘ. ছয়টি
২৫। আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধবের কাছে লেখাপত্রকে কী বলা হয়?
ক. আবেদনপত্র খ. দরখস্ত
গ. অভিনন্দনপত্র ঘ. ব্যক্তিগত পত্র
২৬। প্রাপকের নাম-ঠিকানা কোথায় লিখতে হয়?
ক. খামের ডান দিকে
খ. খামের বাম দিকে
গ. চিঠির শুরুতে
ঘ. চিঠির শেষদিকে
২৭। পত্রের শিরোনামের কয়টি অংশ?
ক. দুটি খ. তিনটি
গ. চারটি ঘ. একটি
২৮। যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম কী?
ক. পত্র খ. বেতার
গ টেলিফোন ঘ. মোবাইল
২৯। পত্রের প্রধান অংশ কয়টি?
ক. দুটি খ. তিনটি
গ. চারটি ঘ. ছয়টি
৩০। পত্র লেখার প্রধান উদ্দেশ্য কী?
ক. ভাষার শিক্ষা গ্রহণ
খ. আত্মপরিচয় প্রকাশ
গ. মনের ব্যথা দূরীকরণ
ঘ. মনের ভাব অপরকে জানানো
৩১। পত্র লেখকের জীবনবৃত্তান্ত ও শিক্ষাগত যোগ্যতার বিবরণ প্রয়োজন হয় কোন ধরনের পত্রে?
ক. আবেদনপত্রে
খ. চাকরির দরখাস্তে
গ. স্মারকলিপিতে
ঘ. বিয়ের নিমন্ত্রণপত্রে
৩২। পত্র প্রধানত দুই প্রকার_ কী কী?
ক. ব্যক্তিগত ও সামাজিক
খ. ব্যক্তিগত ও ব্যবহারিক
গ. সামাজিক ও ব্যবহারিক
ঘ. সামাজিক ও দাফতরিক
৩৩। একজন স্কুলছাত্র তার নৈমিত্তিক ছুটির প্রয়োজনে কার বরাবর দরখাস্ত করবে?
ক. শ্রেণী শিক্ষক খ. প্রধান শিক্ষক
গ. অধ্যক্ষ ঘ. সম্পাদক
৩৪। কোন ধরনের পত্রে আবেদন বিনীত, ভাষা মার্জিত ও বাহুল্য বর্জিত এবং অনুষ্ঠানসূচি সনি্নবেশিত থাকে?
ক. মানপত্রে খ. স্মারকলিপিতে
গ. দরখাস্তে ঘ. নিমন্ত্রণপত্রে
৩৫। কোন ধরনের পত্রে সংযুক্তি আবশ্যক?
ক. চাকরির দরখাস্তে খ. প্রশংসাপত্রে
গ. মানপত্রে
ঘ. নিমন্ত্রণপত্রে
৩৬। সরকারি ব্যবস্থাপনায় চিঠিপত্র বিলিবণ্টন করে কে?
ক. ডাক বিভাগ
খ. কুরিয়ার সার্ভিস
গ. পোস্ট মাস্টার
ঘ. কাজের লোক
৩৭। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় চিঠিপত্র বিলিবণ্টন করে কে?
ক. ডাক বিভাগ
খ. কুরিয়ার সার্ভিস
গ. পোস্ট মাস্টার
ঘ. যোগাযোগ মন্ত্রণালয়
৩৮। কোনো শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিকে বিদায়ানুষ্ঠানে যে শ্রদ্ধার্ঘ্যপত্র দেওয়া হয় তাকে কী বলে?
ক. বিদায়পত্র খ. মানপত্র
গ. শ্রদ্ধাঞ্জলি ঘ. সম্মানপত্র
৩৯। কোন ধরনের পত্রে একাধিক সম্বোধন পদের ব্যবহার হয়?
ক. ব্যক্তিগত পত্র খ. অভিনন্দনপত্র
গ. আবেদনপত্র ঘ. নিমন্ত্রণপত্র
৪০। প্রবাসী বন্ধুকে লেখা পত্রের ঠিকানা কোন ভাষায় লিখতে হয়?
ক. অবস্থানকারী দেশের ভাষায়
খ. ইংরেজি ভাষায়
গ. বাংলা ভাষায়
ঘ. যে কোনো ভাষায়
৪১। সৌদি আরবে অবস্থানরত কোনো বাঙালি বন্ধুকে চিঠি লিখে খামের ওপর কোন ভাষায় ঠিকানা লিখতে হয়?
ক. আরবি ভাষায় খ. বাংলা ভাষায়
গ. ইংরেজি ভাষায় ঘ. ফারসি ভাষায়
৪২। 'যেতে নাহি দিব হায়, তবু যেতে দিতে হয়'_ এ উক্তিটি কোথায় প্রযোজ্য?
ক. আবেদনপত্রে
খ. নিমন্ত্রণপত্রে
গ. বিদায় অভিনন্দনপত্রে
ঘ. চুক্তিপত্রে
৪৩। বাংলা চিঠিপত্র রচনার পেছনে কোন ভাষার প্রভাব বিদ্যমান?
ক. সংস্কৃত খ. আরবি
গ. ফারসি ঘ. ইংরেজি
৪৫। ডাকযোগে পুস্তক প্রেরণের জন্য কার বরাবর পত্র পাঠাতে হয়?
ক. পুস্তক লেখকের
খ. পুস্তক প্রকাশকের
গ. পুস্তক বিক্রেতার
ঘ. পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের
৪৬। বাণিজ্যিক পত্র কোনটি?
ক. আবেদনপত্র খ. নিমন্ত্রণপত্র
গ. চুক্তিপত্র ঘ. স্মারকলিপি


১. ওয়ান>আন কোন ভাষার প্রত্যয়?
ক. হিন্দি খ. ফারসি
গ. আরবি ঘ. ইংরেজি
২. 'আমি অবেলাতে দিলাম পাড়ি অথৈ সাগরে'_ এখানে 'অ' কোন উপসর্গ?
ক. সংস্কৃত খ. খাঁটিবাংলা
গ. বিদেশি ঘ. কোনটিই নয়
৩. 'শরতের পরে আসে বসন্ত'_ বাক্যটিতে 'পরে' অনুসর্গটি যে অর্থ প্রকাশ করেছে_
ক. বিরতি খ. অবধি
গ. স্বল্পবিরতি ঘ. দীর্ঘ বিরতি
৪. অজ্ঞাতমূল খাতু কোনটি?
ক. কহ্ খ. হ্ গ. টান্ ঘ. হের
৫. সাবধান হও নতুবা বিপদে পড়বে, ক্রিয়াটি কোন ধাতুজাত?
ক. মৌলিক ধাতু
খ. প্রযোজক ধাতু
গ. নামধাতু
ঘ. সংযোজকমূলক ধাতু
৬. 'এক বিরাট সত্য'_ এখানে সত্য কোন পদরূপে ব্যবহৃত হয়েছে?
ক. বিশেষ্য খ. বিশেষণ
গ. অব্যয় ঘ. ক্রিয়া
৭. মন্ত্রের সাধন কিংবা শরীর পাতন_ এখানে 'কিংবা' কোন ধরনের অব্যয়?
ক. সংযোজক অব্যয়
খ. বিয়োজক অব্যয়
গ. অনুকার অব্যয়
ঘ. সমুচ্চয়ী অব্যয়
৮. যথা ধর্ম তথা জয়_কোন ধরনের অব্যয়ের উদাহরণ?
ক. প্রত্যয়ান্ত অব্যয়
খ. অব্যয় বিশেষণ
গ. নিত্যসম্বন্ধীয় অব্যয়
ঘ. অনুসর্গ অব্যয়
৯. কোনটি উপমা অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে?
ক. ইস্ ঠাণ্ডা যেন বরফ
খ. ছেলে তো নয় যেন ননীর পুতুল
গ. ছেলে তো নয়, যেন একটা হিটলার
ঘ. মুখ যেন পদ্মফুল
১০. সুতি কাপড় অনেক দিন টেকে_ এ বাক্যটি কিসের উদাহরণ?
ক. কর্মবাচ্য খ. কর্মকর্তৃবাচ্য
গ. ভাববাচ্য ঘ. কর্তাবাচ্য
১১. সকলের জন্য প্রযোজ্য_ এক কথায়_
ক. সর্বজনীন খ. সার্বজনীন গ. সকলের যোগ্য ঘ. সর্বজনিন
১২. যা সহজে অতিক্রম করা যায় না_
ক. অনতিক্রম্য খ. দুর্ভেদ্য
গ. দুরতিক্রম্য ঘ. দুর্জয়
১৩. দ্বিকর্মক ক্রিয়ার বস্তুবাচক কর্মপদটিকে কী বলে?
ক. উদ্দেশ্যকর্ম খ. মুখ্যকর্ম
গ. বিধেয় কর্ম ঘ. গৌণ কর্ম
১৪. 'বিপদঘণ্টা বেজে উঠল'_ এখানে কী অর্থে যৌগিক ক্রিয়াটি ব্যবহৃত হয়েছে?
ক. আকস্মিকতা খ. সমাপ্তি
গ. ব্যাপ্তি ঘ. ক্রমশ
১৫. বৈষয়িক ব্যাপারে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় লিখিতপত্রকে কী বলে?
ক. স্মারকলিপি খ. দলিলপত্র
গ. যোগাযোগপত্র ঘ. বায়নাপত্র
১৬. কোন বিষয়টি চিঠির ক্ষেত্রে সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ?
ক. ভাষা সমৃদ্ধি
খ. চিঠির আয়তন
গ. স্বাক্ষর ও সম্বোধন
ঘ. বক্তব্যের স্পষ্টতা
১৭. ঝরসঢ়ষব ংবহঃবহপব-এর অনুবাদ কোন বাক্যে হবে?
ক. সহজ বাক্যে খ. মিশ্রবাক্যে
গ. সরল বাক্যে ঘ. যৌগিক বাক্যে
১৮. অনুবাদ করার সময় কোন বিষয়ের প্রতি বিশেষ মনোযোগ দিতে হয়?
ক. বানানের প্রতি
খ. অর্থের প্রতি
গ. বিন্যাসের প্রতি
ঘ. বারবার পড়ার প্রতি
১৯. কোন শ্রেণীর পত্রে জীবনবৃত্তান্ত উল্লেখ করতে হয়?
ক. ব্যক্তিগতপত্রে
খ. সংবাদপত্রে
গ. চাকরির আবেদনপত্রে
ঘ. মানপত্রে

১০১. খাঁটি বাংলা ধাতু কোনটি?
ক. নাচ্ খ. জম্ গ. দল্ ্রঘ. কাট
১০২. ক্রিয়াপদের মূল অংশকে কী বলে?
ক. উক্তি খ. যতি ্রগ. ধাতু ঘ. প্রকৃতি
১০৩. কোন ধাতু বিশ্লেষণ সাপেক্ষ নয়?
ক. সাধিত ধাতু ্রখ. মৌলিক ধাতু
গ. নাম ধাতু ঘ. যৌগিক ধাতু
১০৪. কোনটি নাম ধাতুর উদাহরণ?
্রক. ঘুম+আ খ. কৃ+তব্য
গ. নাচ্+আ ঘ. খেল্+এ
১০৫. মৌলিক ধাতুর পরে আ প্রত্যয় যোগ করলে, তাকে বলে_
ক. সাধিত ধাতু খ. বিদেশি ধাতু
্রগ. প্রযোজক ধাতু ঘ. খাঁটি বাংলা ধাতু
১০৬. কোনটি বিদেশি ধাতুর উদাহরণ?
ক. নাচ্ খ. পড়্ ্রগ. ফির্ ঘ. আঁক্
১০৭. বিশেষ্য বা বিশেষণের পরে আ প্রত্যয় যোগে গঠিত হয়_
ক. নিজন্ত ধাতু খ. সাধিত ধাতু
গ. মৌলিক ধাতু ্রঘ. নাম ধাতু
১০৮. সুখে থাক।_ এটি কিসের উদাহরণ?
ক. সাধারণ বর্তমান খ. ঘটমান বর্তমান ্রগ. বর্তমান অনুজ্ঞা ঘ. পুরাঘটিত বর্তমান
১০৯. বসন্তের হাওয়া বইছে_ কোন কালের উদাহরণ?
ক. ঘটমান অতীত খ. পুরাঘটিত বর্তমান গ. নিত্যবৃত্ত বর্তমান ্রঘ. ঘটমান বর্তমান
১১০. বাক্যের কোন পদ দিয়ে বিভিন্ন কালের পরিচয় পাওয়া যায়?
ক. বিশেষ্য পদ ্রখ. ক্রিয়া পদ
গ. বিশেষণ পদ ঘ. সর্বনাম পদ
১১১. যে ক্রিয়া পূর্বে ঘটে গেছে, তার কালকে কী বলে?
ক. বর্তমান কাল ্রখ. অতীত কাল
গ. ভবিষ্যৎ কাল ঘ. সাধারণ অতীত
১১২. বাবা আমাদের পড়াশোনা দেখছিলেন। এ বাক্যটি কোন কালের উদাহরণ?
ক. সাধারণ অতীত খ. পুরাঘটিত অতীত ্রগ. ঘটমান অতীত ঘ. পুরাঘটিত বর্তমান
১১৩. 'সন্দেশ' কোন শ্রেণীর শব্দ?
ক. দেশি খ. যৌগিক
্রগ. রূঢ়ি ঘ. যোগরূঢ়
১১৪. 'রাজপুত্র' শব্দের ব্যুৎপত্তিগত অর্থ কোনটি?
ক. রাজা ও পুত্র ্রখ. রাজার পুত্র
গ. রাজা যে পুত্র ঘ. জাতিবিশেষ
১১৫. 'যোগরূঢ়' শব্দ কোনটি?
ক. বাঁশি খ. পাঞ্জাবি ্রগ. পঙ্কজ ঘ. মধুর
১১৬. কোনটি তৎসম শব্দ?
ক. কুড়ি ্রখ. শত গ. কাজ ঘ. লাজ
১১৭. কোনটি মিশ্র শব্দের উদাহরণ?
ক. সমুদ্র খ. হাসপাতাল ্রগ. খ্রিস্টাব্দ ঘ. পাথর
১১৮. গঠন অনুসারে শব্দ কত প্রকার?
্রক. দুই প্রকার খ. তিন প্রকার
গ. চার প্রকার ঘ. পাঁচ প্রকার
১১৯. 'আনারস' কোন ভাষার শব্দ?
ক. গুজরাটি খ. ফরাসি
্রগ. পর্তুগিজ ঘ. তুর্কি
১২০. 'জলধি'-এর যোগরূঢ় অর্থ কী?
ক. জল আছে যার
খ. জল ধারণ করে এমন
গ. নদী
্রঘ. সমুদ্র
১২১. 'দৌহিত্র' কোন ধরনের শব্দ?
ক. রূঢ়ি শব্দ ্রখ. যৌগিক শব্দ
গ. যোগরূঢ় শব্দ ঘ. দেশি
১২২. বাক্যের একক কী?
ক. উক্তি খ. বচন ্রগ. শব্দ ঘ. বিভক্তি
১২৩. ভাব বিচারে একটি বাক্যের কয়টি গুণ থাকা আবশ্যক?
ক. ২টি ্রখ. ৩টি গ. ৪টি ঘ. ৫টি
১২৪. বাক্যে উপমা-অলংকার যথাযথভাবে ব্যবহার না করলে কোন গুণ নষ্ট হয়?
ক. আকাঙ্ক্ষা খ. আসক্তি
্রগ. যোগ্যতা ঘ. অর্থবাচকতা
১২৫. কোনটিতে গুরুচণ্ডালী দোষ হয়েছে?
ক. শবদাহ খ. মড়াপোড়া
্রগ. গরুর শকট ঘ. ঘোড়ার গাড়ি 
১২৬. সত্য কথা না বলে বিপদে পড়েছি_ এটি কোন ধরনের বাক্য?
ক. সরল বাক্য খ. যৌগিক বাক্য
গ. জটিল বাক্য ঘ. মিশ্র বাক্য
১২৭. যে বাক্যে একটিমাত্র সমাপিকা ক্রিয়া থাকে, তাকে কী বলে?
ক. জটিল বাক্য খ. সরল বাক্য
গ. যৌগিক বাক্য ঘ. মিশ্র বাক্যে
১২৮. জটিল বাক্য নয় কোনটি?
ক. যাদের ধন আছে তারা প্রায়ই কৃপণ হয়
খ. জগতে এমন কিছু নেই, যা অসম্ভব
গ. যখন বিপদ আসে তখন দুঃখও আসে
ঘ. তার টাকা আছে, সেজন্য সে অত্যন্ত গর্বিত
১২৯. কোন বাক্যে যিনি-তিনি, যা-তা, যে-সে ইত্যাদি সর্বনাম থাকে?
ক. সরল বাক্য খ. জটিল বাক্য
গ. আশ্রিত বাক্য ঘ. যৌগিক বাক্য
১৩০. বাক্যে সুশৃঙ্খল পদবিন্যাসকে কী বলে?
ক. আসক্তি খ. আকাঙ্ক্ষা
গ. যোগ্যতা ঘ. উদ্দেশ্য

উত্তর :১০১. ঘ ১০২. গ ১০৩. খ ১০৪. ক ১০৫. গ ১০৬. গ ১০৭. ঘ ১০৮. গ ১০৯. ঘ ১০০. খ ১১১. খ ১১২. গ ১১৩. গ ১১৪. খ ১১৫. গ ১১৬. খ ১১৭. গ ১১৮. ক ১১৯. গ ১২০. ঘ ১২১. খ ১২২. গ ১২৩. খ ১২৪. গ ১২৫. গ ১২৬. ক ১২৭. খ ১২৮. ঘ ১২৯. খ ১৩০. ক
সারমর্ম সারাংশ
কোন গদ্য বা পদ্য রচনার অন্তর্নিহিত মূল ভাবকে সহজ-সরল ভাষায় সংক্ষেপে প্রকাশ করাই হলো সারাংশ বা সারমর্ম।
সারাংশ লেখার ক্ষেত্রে মূল বক্তব্যকে সংক্ষেপে উপস্থাপন করতে হয়। আর সারমর্ম লিখতে রচনার মূল বক্তব্য বা কবিতার মূল ভাব নিরূপণ করে তার তাৎপর্য তুলে ধরতে হয়। তাই সারমর্ম সারাংশের চেয়ে আকারে কিছুটা ছোট হয়। তবে সারমর্ম/সারাংশ কতটা ছোট হবে তা নির্ভর করে প্রদত্ত অংশে বর্ণিত বিষয়ের গুরুত্ব ও গভীরতার ওপর। কখনও মূলের অর্ধেক, এক-তৃতীয়াংশ বা তারও কম হতে পারে।
সারাংশ/সারমর্ম যথার্থ লিখতে হলে প্রদত্ত অংশটি খুব ভালো করে কয়েকবার পড়তে হবে। কারণ এর মূল ভাবটুকু সংলাপ, উদাহরণ, উপমা ইত্যাদির আড়ালে প্রচ্ছন্ন থাকে। কিন্তু এটাও মনে রাখতে হবে, প্রদত্ত অংশের উদৃব্দতি, সংলাপ, উদাহরণ, উপমা, রূপক এসব বাদ দিয়ে তা থেকে মূলভাবটি সংক্ষেপে ফুটিয়ে তুলতে হবে। শুরুতেই যে বাক্যটি থাকবে তা পরীক্ষকের কাছে আকর্ষণীয় হতে হবে। মনে রাখতে হবে, সারাংশে উত্তম পুরুষ ও মধ্যম পুরুষ বর্জনীয়। প্রয়োজনে নাম পুরুষের ব্যবহার করা যায়।
বিশ্বজোড়া পাঠশালা মোর
সবার আমি ছাত্র
নানান ভাবে নতুন জিনিস
শিখছি দিবারাত্র।
এই পৃথিবীর বিরাট খাতায়
পাঠ্য যে সব পাতায় পাতায়
শিখছি সে সব কৌতূহলে
নেই দ্বিধা লেশামাত্র।
সারমর্ম : বিশ্বের বিচিত্র উৎস থেকে মানুষ প্রতিনিয়ত শিক্ষালাভ করে, কারণ মানুষের জীবনে বিশ্ব এক বিরাট শিক্ষাঙ্গন। যুগ যুগ ধরেই বিশ্বের এই মহাপাঠশালা থেকে মানুষ প্রতিনিয়ত অর্জন করছে অভিজ্ঞতালব্ধ বিপুল জ্ঞান। তার ওপর ভিত্তি করেই বিকশিত হচ্ছে মানব সভ্যতা।
 

No comments:

Post a Comment